কর্মসূচিতে সভাপতিত্ব করেন জেলা কৃষক দলের আহ্বায়ক মো. রেজাউল ইসলাম। বক্তব্য দেন জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক আলী আশরাফ, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহ্বায়ক হাফিজুর রহমান প্রমুখ।

বক্তারা অভিযোগ করেন, গতকাল বুধবার পুলিশসহ ছাত্রলীগ, যুবলীগের ক্যাডাররা বিএনপি কার্যালয়ের সামনে অতর্কিত হামলা চালিয়েছে। এতে দলের এক কর্মী নিহত হয়েছেন। পুলিশ বিএনপির কার্যালয়ে ঢুকে তছনছ করে এক অরাজক পরিস্থিতির সৃষ্টি করেছে।

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন:

যে হাত দিয়ে মারতে আসবে, সে হাত ভেঙে দিতে হবে: শেখ হাসিনা

নয়াপল্টন ‘ক্রাইম জোন’ চিহ্নিত, সাংবাদিকদেরও যেতে দিচ্ছে না পুলিশ

‘জামায়াতমুক্ত’ করার রাজনৈতিক প্রকল্প যে পরিণতি পেল

‘ক্ষমতায় টিকে থাকতে সব সাংবিধানিক অধিকার ক্ষুণ্ন করছে সরকার’

খালেদা জিয়ার মুক্তি চেয়ে স্লোগান, ধাওয়া দিয়ে আটক ৪

পুলিশ দিয়ে হামলা, গুলি, গ্রেপ্তার করে গণমানুষের আন্দোলন দমন করা যাবে না উল্লেখ করে বক্তারা ১০ ডিসেম্বর বিএনপির সমাবেশ সফল করার জন্য সবাইকে একত্র হয়ে হয়ে কাজ করার আহ্বান জানান।