অভিযানে সেলফী পরিবহনের চালক শামীম রেজাকে ৫ হাজার টাকা, মো. শাহীন মিয়াকে ৪ হাজার টাকা ও আবদুল আলিম মিয়াকে ৫০০ টাকা, নিউ ভিলেজ লাইন পরিবহনের চালক মো. আলালকে ১ হাজার টাকা, নীলাচল পরিবহনের চালক সাহাবুদ্দিন আহমেদকে ৫০০ টাকা এবং লেগুনার (ম্যাক্সি) চালক সিফাত উল্লাহকে ৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়।

অধিদপ্তরের জেলা কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলার পাটুরিয়া ও আরিচা ঘাট থেকে স্থানীয় বিভিন্ন গণপরিবহন ঢাকার গাবতলী পর্যন্ত যাত্রী পরিবহন করে। ঈদের ছুটি শেষে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল এবং পশ্চিম-উত্তরাঞ্চলের যাত্রীরা ঢাকা ও এর আশপাশের বিভিন্ন এলাকায় কর্মস্থলে যাচ্ছেন। এসব যাত্রীর কাছ থেকে গণপরিবহনগুলো নির্ধারিত ভাড়ার চেয়ে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করছে।

এমন অভিযোগের ভিত্তিতে এবং জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ আবদুল লতিফের নির্দেশে আজ বেলা ১১টা থেকে বেলা ৩টা পর্যন্ত ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের মানিকগঞ্জ সদরের মুলজান এলাকায় অভিযান চালায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের জেলা কার্যালয়। এ সময় যাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের দায়ে ওই ৬ চালককে ১১ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়। অভিযানে বিআরটিএর মানিকগঞ্জ কার্যালয়, জেলা ক্যাব ও সদর থানা-পুলিশ সহযোগিতা করে।

অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা ১০টি গণপরিবহনের কাছ থেকে টাকা নিয়ে যাত্রীদের ফেরত দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি প্রতিটি পরিবহনের চালককে ভাড়ার তালিকা প্রদর্শনের জন্য বলা হয়েছে। জনস্বার্থে এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে তিনি জানান।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন