নিহত জুনায়েদ আদমদীঘি বাজারের মুদিদোকানি বাবু হোসেনের ছেলে।

আদমদীঘি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রেজাউল করিম দুর্ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করে প্রথম আলোকে বলেন, শিশুটির লাশ এখনো থানায় আসেনি। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী লোকজন ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, জুনায়েদ রাস্তা পার হচ্ছিল। এ সময় দ্রুতগতিতে আসা একটি ভটভটি তাকে চাপা দেয়। গুরুতর আহত অবস্থায় শিশুটিকে উদ্ধার করে স্থানীয় লোকজন আদমদীঘি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে বগুড়া নিয়ে যাওয়ার সময় পথে তার মৃত্যু হয়।