মামলার এজাহারের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলার বাসিন্দা ওই কিশোরী গত রোববার কমলগঞ্জ উপজেলায় নানার বাড়িতে যাওয়ার জন্য বাড়ি থেকে রওনা হয়। কমলগঞ্জে আসার পর ওই উপজেলার বাসিন্দা মোহন মিয়া ও রাজ্জাক বখস তাকে নানার বাড়িতে পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় উঠিয়ে নেন। পরে তাঁরা ওই কিশোরীকে একটি বাড়িতে আটকে রেখে ধর্ষণ করেন।

গতকাল রাত ১০টার দিকে আটক দুজনকে কমলগঞ্জ থানায় হস্তান্তর করা হয় এবং উদ্ধার কিশোরীকে কমলগঞ্জ থানা-পুলিশের জিম্মায় দেওয়া হয়।

কিশোরীর বাবা আজ শনিবার ওই দুজনকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে কমলগঞ্জ থানায় মামলা করেছেন।

পুলিশ জানায়, গতকাল শুক্রবার রাতে শ্রীমঙ্গল শহরের একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে পুলিশ মোহন ও রাজ্জাককে আটক করে। ওই কিশোরীকে উদ্ধার করা হয়। গতকাল রাত ১০টার দিকে আটক দুজনকে কমলগঞ্জ থানায় হস্তান্তর করা হয় এবং কিশোরীকে কমলগঞ্জ থানা-পুলিশের জিম্মায় দেওয়া হয়।

কমলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সঞ্জয় চক্রবর্তী মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আটক দুজনকে কিশোরীর বাবার করা মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। আদালতের মাধ্যমে তাঁদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে। স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য কিশোরীকে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।