বাঁশখালী উপজেলার গন্ডামারা এলাকায় নির্মিতব্য ১ হাজার ৩২০ মেগাওয়াট কয়লাবিদ্যুৎ প্রকল্প (বাঁশখালী এসএস পাওয়ার ওয়ান) ও কোস্টগার্ড সূত্রে জানা যায়, পাথর ও পাথরভাঙা মেশিনবাহী বার্জটি বাঁশখালী কয়লাবিদ্যুৎ উৎপাদন প্রকল্পের উন্নয়নের কাজে আসছিল।

বার্জটির মালিক ভারতের অ্যানজেল এক্সপোর্ট কোম্পানি। ভারতের কাকিনাদা বন্দর থেকে বার্জটিকে এ এম অ্যাকুয়ার্ড নামের টাগবোট টেনে নিয়ে আসছিল। এটা বাংলাদেশের নৌ-সীমানায় আসার পরে বৈরী আবহাওয়ার কবলে পড়ে। তখন সমুদ্র উত্তাল হয়ে গেলে বার্জ থেকে টাগবোট বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। পরে বার্জটি চরফ্যাশন চরে আটকে যায়।

কোস্টগার্ডের মিডিয়া কর্মকর্তা বলেন, বার্জটি উদ্ধারে মালিকপক্ষের একটি টাগবোট পায়রা বন্দর থেকে, অন্যটি চট্টগ্রাম থেকে চরনিজামে এসে পৌঁছায়। আসার পথে রোববার সেগুলো চরে আটকা পড়ে। গতকাল দুপুরের দিকে জোয়ারের উচ্চতা বাড়লে টাগবোটগুলো ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। পরে কোস্টগার্ড আনুষ্ঠানিকভাবে বার্জটি মালিকপক্ষের কাছে বুঝিয়ে দিয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন