বিমানবন্দর পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গতকাল রাত সোয়া আটটার দিকে ইউএস-বাংলার একটি ফ্লাইটে সৈয়দপুর থেকে ঢাকা যাচ্ছিলেন আবদুর রাজ্জাক ও তাঁর ভাগনে। বোর্ডিং পাস নেওয়ার সময় নিরাপত্তারক্ষীরা তাঁকে তল্লাশি করেন। এ সময় তাঁর জামার পকেট থেকে ইয়াবা জব্দ করা হয়।

থানাহাট ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. আবদুল করিম প্রথম আলোকে বলেন, চেয়ারম্যান আবদুর রাজ্জাক ওমরাহ পালনের উদ্দেশ্যে সৌদি আরব যাচ্ছিলেন। এ জন্য তিনি শুক্রবার এলাকায় দোয়া মাহফিল করে সবার কাছ থেকে বিদায় নেন। সাবেক সৌদিপ্রবাসী মুসা মিয়াকে সঙ্গে করে নিয়ে যাচ্ছিলেন। তিনি বলেন, ‘সৈয়দপুর বিমানবন্দরে ইয়াবাসহ আটকের ঘটনা শুনেছি। কিন্তু আমাদের ধারণা, স্থানীয় রাজনৈতিক কোন্দলের কারণে তাঁকে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানো হয়েছে। সুস্থ কোনো মানুষ ইয়াবা নিয়ে বিমানবন্দরে ঢুকবেন না, এটা পরিষ্কার। হতে পারে তাঁর সহযাত্রী তাঁকে ফাঁসিয়েছেন।’