লেফটেন্যান্ট কর্নেল শাহ মো. ইশতিয়াক বলেন, বেলা ১১টার দিকে উপজেলার ফুলবাড়ি সীমান্ত এলাকা দিয়ে বিশেষ চোরাচালানি মালামাল পাচার হচ্ছে বলে গোপন খবর পায় বিজিবি। খবর পেয়ে বিজিবির ফুলবাড়ি সীমান্ত ফাঁড়ির কমান্ডার নায়েব সুবেদার মো. আহসান কবির ও টহল কমান্ডার মো. ফারুক হোসেন বিশেষ টহল দল নিয়ে সীমান্ত খুঁটি ৮৫ থেকে ৩০০ গজ বাংলাদেশের ভেতরে অবস্থান নেন। এ সময় বিজিবির সদস্যরা দেখেন, অজ্ঞাতনামা এক ব্যক্তি একটি ব্যাগ নিয়ে ভারতের দিকে যাচ্ছেন। তখন বিজিবির সদস্যরা তাঁকে ধাওয়া দিলে ওই ব্যক্তি ব্যাগ ফেলে পালিয়ে যান।

শাহ মো. ইশতিয়াক জানান, বিজিবির সদস্যরা ব্যাগের ভেতর থেকে মোট আটটি প্যাকেট উদ্ধার করেন। প্রতিটি প্যাকেটে ১০০টি করে ১০০ ডলারের নোটের বান্ডিল ছিল। মোট ৮টি বান্ডিলে ৮০ হাজার ডলার ছিল ব্যাগে।

বিজিবি-৬-এর অধিনায়ক আরও বলেন, চুয়াডাঙ্গা সীমান্তে বিভিন্ন সময়ে উদ্ধার করা বিদেশি মুদ্রার মধ্যে এটাই সবচেয়ে বড় চালান। এ ঘটনায় দর্শনা থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। পাশাপাশি উদ্ধার করা ডলারগুলো চুয়াডাঙ্গা ট্রেজারিতে জমা দেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন