ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা গেছে, পৌর শহরের পূর্বজগন্নাথপুর মহল্লায় জাকিউল কবীবের বাড়িতে মাদক কেনাবেচা হচ্ছে—এমন সংবাদের ভিত্তিতে থানা–পুলিশকে সঙ্গে নিয়ে অভিযান পরিচালনা করে প্রশাসন। তবে প্রশাসনের উপস্থিতি টের পেয়ে ওই বাড়ির মালিক শৌচাগারের মধ্যে ইয়াবা লুকিয়ে রাখেন। পরে বাড়ির মালিককে আটকের পর জিজ্ঞাসাবাদ করলে তাঁর দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, শৌচাগার থেকে ১২টি ইয়াবা বড়ি উদ্ধার করা হয়। এ সময় ওই বাড়িতে ইয়াবা সেবনের অভিযোগে আরও পাঁচজনকে আটক করা হয়।

ইউএনও পরিমল কুমার সরকার প্রথম আলোকে বলেন, সেখানে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে শাহিনুর ইসলাম, তহিদুর রহমান ও জাকিউল কবীরকে তিন মাস করে ও আমিন হোসেনকে ১০ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়। এ ছাড়া দুজনকে অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

বিরামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুমন কুমার মহন্ত প্রথম আলোকে বলেন, মাদক কেনাবেচা ও সেবনের দায়ে দণ্ডপ্রাপ্ত চার আসামিকে পুলিশি হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। আজ বুধবার সকালে তাঁদের দিনাজপুর কারাগারে পাঠানো হবে।