সাদ অনুসারীদের মিডিয়া সমন্বয়ের দ্বায়িত্বে থাকা মো. সায়েম প্রথম আলোকে বলেন, পুরো ইজতেমা মাঠ এখন কানায় কানায় পূর্ণ। সারা দেশ থেকে তাঁদের সাথিরা আসছেন। দুপুর সোয়া ১২টার দিকে জুমার নামাজের আজান দেওয়া হয়েছে। এরপর খুতবা শেষে বেলা সোয়া একটার অনুষ্ঠিত হবে জুমার নামাজ। নামাজ পড়াবেন ভারতের মাওলানা ইউসুফ বিন সাদ।

এর আগে আজ বেলা ১১টার দিকে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক ও ঢাকা-আশুলিয়া সড়ক ঘুরে জুমার নামাজে অংশ নিতে আসা মুসল্লিদের ঢল দেখা গেছে। আজ ছুটির দিন হওয়ায় অনেকেই দল বেঁধে ইজতেমা মাঠে নামাজ আদায় করতে আসছেন।

ঢাকার ফায়দাবাদ থেকে নামাজে যোগ দিতে ইজতেমা মাঠের দিকে যাচ্ছিলেন মো. জাহিদ হাসান (২৩)। আবদুল্লাহপুর মোড়ে দেখা হয় তাঁর সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘অনেক দিনের ইচ্ছা ইজতেমার মুসল্লিদের সঙ্গে জুমার নামাজ পড়ব। গত ইজতেমায়ও (প্রথম পর্ব) আসছিলাম, কিন্তু মানুষের ভিড়ের কারণে ভেতরে ঢুকতে পারি নাই। তাই আজকে আগেভাগেই চলে আসছি।’

টঙ্গীর বাটাগেট এলাকায় কথা হয় মো. রেদওয়ান হোসেনের সঙ্গে। ঢাকার বিমানবন্দর এলাকা থেকে তিনি এসেছেন। রেদওয়ান বলেন, দীর্ঘ ১০ বছর ধরে ইজতেমায় এসে জামাতের সঙ্গে  জুমার নামাজ আদায় করেন। এবার অনেক দিন পর ইজতেমা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এ জন্য তিনি বেশ উচ্ছ্বসিত। প্রথম পর্বেও ইজতেমার জামাতের সঙ্গে তিনি নামাজ আদায় করেছেন।