আহত ব্যবসায়ীর নাম শোভন (৫০)। তিনি লক্ষ্মীপুর পৌর সুপারমার্কেটের এক্সেস ফ্যাশনের স্বত্বাধিকারী ও পৌরসভার সমসেরাবাদ এলাকার বাসিন্দা। এ ঘটনায় আজ রোববার দুপুরে লক্ষ্মীপুর সদর থানায় আহত শোভনের বাবা মো. সিরাজ বাদী হয়ে মামলা করেন। ওই মামলায় অটোরিকশাচালক মো. সোহেলকে (২৫) গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, কয়েক দিন আগে শোভন সোহেলের অটোরিকশায় ওঠেন। ভাড়া কম দেওয়া নিয়ে তাঁদের মধ্যে কথা-কাটাকাটি হয়। এর জের ধরে তাঁর ওপর হামলার পরিকল্পনা করেন অটোরিকশাচালক। ওই পরিকল্পনা অনুযায়ী গতকাল রাতে দোকান বন্ধ করে বাসায় ফেরার পথে শোভনের ওপর হামলা চালান সোহেল।

এ সময় সোহেল তাঁকে দা দিয়ে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকেন। তাৎক্ষণিক বাজারের ব্যবসায়ী ও পথচারীরা এগিয়ে এসে শোভনকে রক্ষা করেন এবং হামলাকারীকে গণপিটুনি দেন। এরপর পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ওই যুবককে আটক করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। আহত শোভনকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।
ব্যবসায়ীরা জানান, পূর্বপরিকল্পিতভাবে এ হামলা করা হয়েছে। সবাই এগিয়ে না এলে সোহেল তাঁকে মেরেই ফেলতেন।

সদর হাসপাতালের চিকিৎসক শামীম হোসেন আফজাল বলেন, আহত ব্যক্তির পিঠে, বুকে ও ঘাড়ে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তাঁর অবস্থা আশঙ্কাজনক। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাঁকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

লক্ষ্মীপুর সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোসলেহ উদ্দিন বলেন, হামলাকারী যুবককে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।