সোনাগাজী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. মাহবুব আলম সরকার বলেন, রুস্তম আলী প্রায়ই স্থান পরিবর্তন করতেন। একটি মুঠোফোন নম্বর বেশি দিন ব্যবহার করতেন না। মাঝেমধ্যে গোপনে রাতের বেলায় বাড়ি এসে আবার ভোর হওয়ার আগে চলে যেতেন। তিনি স্থানীয়ভাবে বিষয়টি জানতে পারেন। এরপর এক মাস আগে রুস্তম আলীকে ধরতে তিনি ছদ্মবেশে গভীর রাতে তাঁর গ্রামের বাড়িতে এবং সম্ভাব্য কয়েকটি স্থানে গিয়ে খোঁজখবর নেন। পরে এক ব্যক্তির মাধ্যমে রুস্তমের বেশ কয়েকটি মুঠোফোন নম্বর ও ছবি সংগ্রহ করেন। এবার ঈদের বাড়ি আসতে পারেন বলে খবর পান। পরে একজন লোককে তথ্য দিয়ে সহায়তা করার জন্য টাকার বিনিময়ে নিয়োগ করেন।

মাহবুব আলম আরও বলেন, রুস্তম ঈদের তৃতীয় দিন রাতে বাড়িতে আসেন। তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে ও সোর্সের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে পৌরসভার পূর্ব তুলাতলী এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।

সোনাগাজী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.খালেদ হোসেন বলেন, সাজাপ্রাপ্ত রুস্তম আলীকে গ্রেপ্তারের পর জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আদালতের মাধ্যমে ফেনীর কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন