মুক্তারপুর নৌ পুলিশ ফাঁড়ির উপপরিদর্শক (এসআই) আকবর হোসেন বলেন, স্থানীয় ব্যক্তিদের মাধ্যমে খবর পেয়ে ঘটনার পরপরই উদ্ধার অভিযান শুরু হয়। নদীতে প্রচণ্ড স্রোত আছে, গভীরতাও ৮০ থেকে ১০০ ফুট। নিখোঁজ ছাত্রের খোঁজে নৌ পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও সদর থানা–পুলিশের সদস্যরা কাজ করছেন। বেলা সাড়ে তিনটা পর্যন্ত খোঁজ মেলেনি।

মুন্সিগঞ্জ সদর ফায়ার সার্ভিসের জ্যেষ্ঠ স্টেশন কর্মকর্তা আবু ইউসুফ বলেন, ঘণ্টাব্যাপী উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। স্রোতের কারণে কিশোরের দেহ এক স্থান থেকে অন্য স্থানে সরে যাওয়ার আশঙ্কা আছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন