লালপুরে আজ সম্মেলনের প্রথম অধিবেশন শুরু হয় বেলা ১১টায়। এতে দলের কেন্দ্রীয়, জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের নেতারা বক্তব্য দেন। প্রথম অধিবেশন শেষে বেলা সোয়া তিনটার দিকে উপজেলা আওয়ামী লীগের পুরোনো কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করেন নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও নাটোর-৪ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক মো. আবদুল কুদ্দুস। বিকেল সোয়া চারটার দিকে সম্মেলনের প্রধান অতিথি আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান নতুন কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষণা করেন। সেই সঙ্গে সহসভাপতি আ স ম মাহমুদুল হক মুকুল ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শামীম আহমেদ সাগরের নামও ঘোষণা করেন তিনি।

সম্মেলনে বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যাবিষয়ক সম্পাদক রোকেয়া সুলতানা, সদস্য বেগম আখতার জাহান, সদস্য সৈয়দ আবদুল আউয়াল, তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ, নাটোর-২ আসনের সংসদ সদস্য শফিকুল ইসলাম, নাটোর-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য আবুল কালাম আজাদ, বর্তমান সংসদ সদস্য মো. শহিদুল ইসলাম, সংরক্ষিত নারী সংসদ সদস্য ও জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রত্না আহমেদ, নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. শরিফুল ইসলাম প্রমুখ।

এর আগে গতকাল বাগাতিপাড়া পাইলট মডেল উচ্চবিদ্যালয় মাঠে উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনে নুরুল ইসলামকে সভাপতি ও মজিবুর রহমানকে সম্পাদক করে নতুন কমিটি গঠন করা হয়। এ সম্মেলনেও প্রধান অতিথি ছিলেন এ এইচ এম খায়রুজ্জামান। সদ্য বিলুপ্ত হওয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এ সম্মেলন বয়কট করেন। তাঁদের বাদ দিয়েই পরে নতুন কমিটি গঠন করা হয়।

সর্বশেষ ২০১৪ সালের ২৪ মে আফতাব হোসেনকে সভাপতি ও মো. ইসাহাক আলীকে সাধারণ সম্পাদক করে লালপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের ৭১ সদস্যবিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়েছিল। একই বছর আবুল হোসেনকে সভাপতি ও সেকেন্দার রহমানকে সাধারণ সম্পাদক করে বাগাতিপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগেরও কমিটি গঠন করা হয়েছিল।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন