পুলিশ ও স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বেলা একটার দিকে আরাফাত আরেক শিশুর সঙ্গে হেঁটে সড়কের পাশ দিয়ে যাচ্ছিল। এ সময় আরাফাত হঠাৎ সড়ক পার হওয়ার চেষ্টা করলে সোনাপুর থেকে মুছাপুর অভিমুখী একটি ট্রাক আরফাতকে চাপা দেয়। এতে আরাফাত সড়কের ওপর ছিটকে পড়ে মাথায় গুরুতর আঘাত পায়। তাৎক্ষণিকভাবে ওই চালক ট্রাক থামিয়ে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় শিশুটিকে উদ্ধার করেন। পরে শিশুটিকে মুমূর্ষু অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানকার চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।  

কবিরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রফিকুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, দুর্ঘটনার পর চালক নিজেই ট্রাক থেকে নেমে শিশুটিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গিয়েছিলেন। পরে পুলিশ ট্রাকটি জব্দ করে থানায় নিয়ে আসে। এ ঘটনায় নিহত শিশুর পরিবারের কোনো অভিযোগ না থাকায় ময়নাতদন্ত ছাড়াই তার লাশ দাফনের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।