রাজবাড়ী সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের ইনচার্জ আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, আহত ব্যক্তিরা দুই দলে সাতজন আসেন। তাঁদের চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। একজন হাসপাতালে ভর্তি আছে। অন্যরা চলে গেছেন।

এ বিষয়ে জানতে মেলা পরিচালনাকারী কাজী ফরিদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি মুঠোফোন ধরেননি।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, মেলায় গাড়ি পার্কিং কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে বাগ্‌বিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়। এতে এক পক্ষের দুজন ও অপর পক্ষের পাঁচজন আহত হন। আহত ব্যক্তিদের মধ্যে আবুল হাসেম সদর হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। তাঁর বাবার নাম মো. হাসেম।

রাজবাড়ী শহরের শ্রীপুর এলাকায় জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ের পাশে মাসব্যাপী বিজয় আনন্দ মেলা চলছে। ৭ জানুয়ারি মেলার উদ্বোধন করেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ কে এম শফিকুল মোরশেদ। মেলা পরিচালনা করছেন কাজী ফরিদ। তাঁর স্ত্রী জেলা যুব মহিলা লীগের সাবেক সভাপতি।

রাজবাড়ী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন রাত ১০টার দিকে বলেন, ‘তুচ্ছ বিষয় নিয়ে মেলার মাঠে দুই পক্ষের মধ্যে মারামারির কথা শুনেছি। পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য একজনকে আটক করে থানায় নিয়ে এসেছে। তবে ঘটনার সঙ্গে তিনি জড়িত ছিলেন কি না, তা নিশ্চিত নই। হামলার বিষয়ে কেউ থানায় কোনো লিখিত অভিযোগ করেননি।’