বন বিভাগের গোপালপুর বিট ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, গতকাল দুপুরে ছমেদ আলী মায়াঘাসি পাহাড়ের ঢালে গবাদিপশুর জন্য ঘাস কাটতে যান। এর পর থেকে তিনি নিখোঁজ। সন্ধ্যা পেরিয়ে গেলেও তিনি বাড়িতে ফিরেননি। পরে বাড়ির লোকজন ও এলাকাবাসী মিলে পাহাড়ে তাঁর খোঁজ করতে থাকেন। রাত নয়টার দিকে পাথরছিলা পাহাড়ের ঢালে বন্য হাতির পায়ে পিষ্ট অবস্থায় ছমেদ আলীর রক্তাক্ত লাশ দেখতে পান তাঁরা। রাত ১০টার দিকে তাঁর লাশ উদ্ধার করে মায়াঘাসি গ্রামে নেওয়া হয়।

বন বিভাগ ও এলাকাবাসীর ধারণা, ঘাস কাটার সময় বন্য হাতি অতর্কিতে ছমেদ আলীর ওপর আক্রমণ চালিয়ে পায়ে পিষ্ট করে হত্যা করে।

ময়মনসিংহ বন বিভাগের মধুটিলা ইকোপার্কের রেঞ্জার আবদুল করিম প্রথম আলোকে বলেন, কয়েক দিন ধরে ৩০–৪০টি বন্য হাতির দল খাবারের সন্ধানে মায়াঘাসি পাহাড়ের গহিন জঙ্গলে অবস্থান করছে। বন্য হাতির অতর্কিত আক্রমণে ওই কৃষকের মৃত্যু হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

নালিতাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বছির আহমেদ প্রথম আলোকে বলেন, এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন