ভাঙ্গা রেলস্টেশনের স্টেশনমাস্টার মো. শাহজাহান বিষয়টি প্রথম আলোকে নিশ্চিত করেছেন। ভাঙ্গা রেলস্টেশন সূত্রে জানা গেছে, পরীক্ষামূলক ট্রেনটি বিশেষ আকৃতিতে নির্মিত একটি বিশেষ রেল ইঞ্জিন। এটি ‘গ্যাংকার’ নামে পরিচিত। বাংলাদেশ সেনাবাহিনী-সিএসসির (কনস্ট্রাকশন সুপারভিশন কনসালটেন্ট) সহযোগিতায় প্রকল্প বাস্তবায়নকারী বেসরকারি সংস্থা ‘ডর্প’ এটি বাস্তবায়ন করছে।

স্টেশন মাস্টার শাহজাহান বলেন, নতুন রেলপথ চালু হওয়ার আগে পরীক্ষামূলকভাবে গ্যাংকারটি আজ সকালে ভাঙ্গা থেকে যাত্রা শুরু করে। ওই গ্যাংকারে সেনাবাহিনী পরিচালিত পদ্মা সেতু সংযোগ রেলপ্রকল্পের সমন্বয়কারী কর্মকর্তা মেজর জেনারেল এস এম জাহিদ এবং প্রকল্প পরিচালক আফজাল হোসেন ৩২ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করেন।

প্রসঙ্গত, আগামী ২০২৩ সালের ২৫ জুন ঢাকা-ভাঙ্গা রেলপথ আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন হওয়া কথা আছে।