রাজশাহীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের স্পেশাল পিপি  সৈয়দ শামসুন্নাহার ও মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা গেছে, ২০১২ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর সকালে পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রী মাঠে বাবাকে খাবার দিয়ে বাড়ি ফিরছিল। তখন আসামি উজ্জ্বল তাকে জোর করে আখখেতে নিয়ে ধর্ষণ করেন এবং এ ঘটনা কাউকে জানালে মেরে ফেলার হুমকি দেন। লোকলজ্জায় ওই ছাত্রী কাউকে জানায়নি।

কিন্তু এক নারী বিষয়টি দেখে ফেলে ওই স্কুলছাত্রীর পরিবারকে জানায়। ঘটনার পরদিন ওই ছাত্রীর বাবা উজ্জ্বলের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আজ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক আসামি উজ্জ্বলকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন। রায় ঘোষণার সময় আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন।