ছবিতে টিকা পুশ করা ওই ব্যক্তি পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ উপজেলার সোনাহার মল্লিকাদহ  ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মো. মশিউর রহমান। গতকাল দুপুরে ওই ইউনিয়নের ক্লাবগঞ্জ কমিউনিটি ক্লিনিকের টিকাকেন্দ্রে করোনার বুস্টার ডোজের ওই টিকা পুশ করেন তিনি।
এ ঘটনায় আজ বুধবার ওই টিকাকেন্দ্রের দায়িত্বে থাকা স্বাস্থ্য সহকারী কুসুম রানীকে তিন দিনের মধ্যে কারণ দর্শানোর নোটিশ (শোকজ) দিয়েছে উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। তবে ইউপি চেয়ারম্যান মশিউর রহমানের দাবি, তিনি টিকা পুশ করেননি, শুধু উদ্বোধনের জন্য সিরিঞ্জ হাতে নিয়ে ফটোসেশন করেছেন।

দেবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গতকাল সকাল থেকে সারা দেশের মতো দেবীগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন টিকাকেন্দ্রে করোনার বুস্টার ডোজ টিকা প্রদানের ক্যাম্পেইন চলছিল। দুপুরে উপজেলার সোনাহার ইউনিয়নের ক্লাবগঞ্জ কমিউনিটি ক্লিনিকের বুস্টার ডোজ টিকাকেন্দ্র পরিদর্শনে যান ইউপি চেয়ারম্যান মো. মশিউর রহমান। এ সময় তিনি স্বাস্থ্য সহকারী কুসুম রানীর হাত থেকে সিরিঞ্জি চেয়ে নিয়ে টিকা নিতে আসা এক ব্যক্তির শরীরে পুশ করেন। এ সময় তাঁর সঙ্গে থাকা লোকজন মুঠোফোনে ছবিও তোলেন। পরে ইউপি চেয়ারম্যান টিকা পুশ করার ওই ছবি নিজের ফেসবুক আইডিতে পোস্ট করলে বিষয়টি জানাজানি হয়। এ নিয়ে সমালোচনা শুরু হলে তিনি ফেসবুক থেকে ছবি সরিয়ে ফেলেন।

এ বিষয়ে টিকাকেন্দ্রের দায়িত্বে থাকা স্বাস্থ্য সহকারী কুসুম রানী মুঠোফোনে বলেন, গতকাল সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত ওই টিকাকেন্দ্রে মোট ৪০০ জনকে বুস্টার ডোজের টিকা দেওয়া হয়েছে। দুপুরের পর টিকা দেওয়ার সময় কেন্দ্র পরিদর্শনে আসেন  ইউপি চেয়ারম্যান মশিউর রহমান। এ সময় ইউপি চেয়ারম্যান তাঁর (কুসুম রানীর) হাত থেকে টিকার সিরিঞ্জ চেয়ে নিয়ে টিকা নিতে আসা ব্যক্তির শরীরে পুশ করেন। চেয়ারম্যানের হাতে সিরিঞ্জ দেওয়া ঠিক নয়, কিন্তু তিনি চাচ্ছিলেন। এ জন্য তিনি তাঁর হাতে সিরিঞ্জ দিয়েছেন।

কুসুম রানী আরও জানান, ইউপি চেয়ারম্যান টিকা দিতে জানেন বলে জানিয়ে শুধু একজনের শরীরেই টিকা দিয়েছেন।

দেবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. হাসিনুর রহমান মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, ‘ইউপি চেয়ারম্যান নিজে থেকেই উদ্যোগী হয়ে টিকাকেন্দ্রে গিয়ে এক ব্যক্তির শরীরে টিকা পুশ করেছেন। এটা তিনি ঠিক করেননি। স্বাস্থ্য সহকারীর কাছ থেকে সিরিঞ্জ চেয়ে নিয়ে তিনি টিকা পুশ করেছেন। আমরা যাঁদের টিকা দেওয়ার জন্য প্রশিক্ষণ দিয়ে তৈরি করেছি, কেন্দ্রে তাঁরাই শুধু টিকা দেবেন। এ ঘটনায় ওই টিকাকেন্দ্রের দায়িত্বে থাকা স্বাস্থ্য সহকারীকে তিন দিনের মধ্যে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া ইউপি চেয়ারম্যান মশিউর রহমান এ ঘটনার জন্য ভুল স্বীকার করেছেন।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন