পুলিশ, এলাকাবাসী ও নিহত ব্যক্তির পারিবারিক সূত্র জানায়, উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের জয়নগর গ্রামের রমজান উল্যাহ ও মোছা. সায়েদুন নেছা দম্পতির বড় ছেলে কওছর উদ্দিন। তিনি রানীগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক সদস্য। ২০১৯ সালে বাংলাদেশ থেকে গ্রিসে যান। সেখান থেকে দালালদের সহযোগিতায় ইতালি যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন তিনি। ইতালির উদ্দেশে রওনা হয়ে গত ২১ জুলাই গ্রিসের একটি সড়কে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে ঘটনাস্থলে প্রাণ হারান কওছর। পরে ওই দুর্ঘটনার সংবাদ ও ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে তাঁর মৃত্যুর বিষয়ে নিশ্চিত হন স্বজনেরা। পরে গ্রিসের এথেন্সে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসের প্রথম সচিব (শ্রম) বিশ্বজিৎ কুমার পালের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি লাশ দেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করেন।

রানীগঞ্জ ইউপির সাবেক সদস্য কওছর উদ্দিন ২০১৯ সালে বাংলাদেশ থেকে গ্রিসে যান। সেখান থেকে দালালদের সহযোগিতায় ইতালি যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন তিনি।

কওছর উদ্দিনের ভাই সুহেল মিয়া বলেন, আট ভাই এক বোনের মধ্যে কওছর সবার বড় ছিলেন। উন্নত জীবনযাপন ও পরিবারের সচ্ছলতা আনতে গ্রিস থেকে দালালদের মাধ্যমে সড়কপথে ইতালির উদ্দেশে রওনা হলে পথে দুর্ঘটনাকবলিত হয়ে প্রাণ হারান কওছর। সেখানে থাকা স্বজন ও গ্রিসের বাংলাদেশ দূতাবাসের সহযোগিতায় লাশ দেশে এনেছেন তাঁরা।

জগন্নাথপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান বলেন, গ্রিসে সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যাওয়া জগন্নাথপুরের ওই ব্যক্তির লাশ আজ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। বিকেলে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন