পারিবারিক সূত্র জানায়, ১৬ জানুয়ারি রাতে সুলতান মেলা দেখার কথা বলে বাসা থেকে মোটরসাইকেল নিয়ে বের হন ইয়াসিন। এর পর থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন। তাঁর ব্যবহৃত মুঠোফোনও বন্ধ পাওয়া যায়। এ ঘটনায় তাঁর বোন শিরিনা খানম ১৮ জানুয়ারি নড়াইল সদর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন।

পুলিশ জানায়, লাশের গলায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, ইয়াসিন মোল্লাকে হত্যা করে তাঁর মোটরসাইকেলটি ছিনিয়ে নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা।

স্থানীয় একাধিক বাসিন্দা জানিয়েছেন, আজ দুপুরে আলোকদিয়া ঈদগাহ এলাকায় সড়কের পাশে খেজুরপাতা দিয়ে ঢাকা অবস্থায় পড়ে থাকা লাশটি পচে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছিল। তাঁরা পুলিশে খবর দিলে বেলা দেড়টার দিকে নড়াইল সদর থানা থেকে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুর রহমান প্রথম আলোকে বলেন, লাশের গলায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তাঁকে কয়েক দিন আগে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশটি নড়াইল সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।