সিলেট নগরের দরগাহ এলাকায় একটি রেস্তোরাঁয় আয়োজিত ওই সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা খন্দকার আবদুল মুক্তাদির বলেন, বিএনপির সমাবেশস্থল সিলেট সরকারি আলিয়া মাদ্রাসা মাঠের পাশেই মাদ্রাসার ভবন। ওই মাদ্রাসা আলিম পরীক্ষা কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে। আগে নির্ধারিত তারিখে (২০ নভেম্বর) ওই কেন্দ্রে পরীক্ষা থাকায় পরীক্ষার্থীদের কথা বিবেচনা করে সমাবেশের তারিখ এক দিন এগিয়ে আনা হয়েছে।

সিলেট বিভাগীয় সমাবেশে ৪ লাখ মানুষের সমাগম ঘটবে বলে আশা প্রকাশ করে খন্দকার আবদুল মুক্তাদির বলেন, ‘বিএনপি দেশের একটি বড় ও দায়িত্বশীল দল, তাই আমাদের দায়িত্বশীলতার জায়গা থেকে পরীক্ষার দিন সমাবেশ না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

বিএনপি নেতা আবদুল মুক্তাদির আরও বলেন, ইতিমধ্যে দেশে বিএনপির যেসব বিভাগীয় সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে, সরকার বিভিন্ন বাধা ও প্রতিকূলতা সৃষ্টি করেও সেগুলোতে গণজোয়ার আটকাতে পারেনি। চিড়া, মুড়ি নিয়ে হেঁটে দু–তিন দিন আগে থেকেই মানুষ সমাবেশে যোগ দেওয়ার জন্য চলে গেছেন। লাখ লাখ মানুষ উপস্থিত হয়েছেন।

এই আন্দোলন শুধু বিএনপির একার নয়, এটা দেশের মানুষের জীবন বাঁচানোর আন্দোলন বলে উল্লেখ করে খন্দকার আবদুল মুক্তাদির বলেন, বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশকে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যে সিলেট নগরসহ বিভাগের জেলা, উপজেলা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে মানুষের মধ্যে উৎসাহের সৃষ্টি হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা এনামুল হক চৌধুরী, কেন্দ্রীয় সহসাংগঠনিক সম্পাদক ও সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি কলিম উদ্দিন আহমদ, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটি সদস্য আবুল কাহের চৌধুরী শামীম, সিলেট জেলা বিএনপির সভাপতি আবদুল কাইয়ুম চৌধুরী, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য মিজানুর রহমান চৌধরী, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এমরান আহমদ চৌধুরী, সিলেট মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক আবদুল কাইয়ুম জালালী পংকী, সদস্যসচিব মিফতা সিদ্দীকি, মহানগর বিএনপির সাবেক সভাপতি নাসিম হোসাইন ও সাধারণর সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিম।

এর আগে সিলেট মহানগর পুলিশ সিলেট নগরের ২৯টি পরীক্ষাকেন্দ্র ও আশপাশের এলাকা ‘অস্থায়ী সংরক্ষিত এলাকা’ হিসেবে ঘোষণা করে। এর মধ্যে নগরের চৌহাট্টা এলাকার ওই সিলেট সরকারি আলিয়া মাদ্রাসা রয়েছে। ফলে মাদ্রাসা মাঠে ২০ নভেম্বর বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশ করা নিয়ে অনিশ্চিয়তা দেখা দেয়। কারণ, মাঠটি পরীক্ষাকেন্দ্রের ২০০ গজের মধ্যেই পড়েছে।