অগ্নিদগ্ধ হয়ে মারা যাওয়া ওই দুই শিশু হলো কালুখালী উপজেলার মাঝবাড়ী গ্রামের বাবু বিশ্বাসের ছেলে হুজাইফা বিশ্বাস (৯) ও ইকরাম মিয়ার ছেলে হাসান মিয়া (৩)। এর মধ্যে হুজাইফা স্থানীয় একটি কওমি মাদ্রাসার শিক্ষার্থী ছিল।

স্থানীয় বাসিন্দা ও মাঝবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মাসুমুর রহমান বলেন, বৃহস্পতিবার বিকেলে বাবু বিশ্বাসের বাড়ির রান্নাঘরে হুজাইফা ও হাসান খেলতে যায়। খেলার সময় তারা গ্যাস লাইট দিয়ে রান্নাঘরের চুলায় আগুন ধরিয়ে দেয়। এ সময় বাবু বিশ্বাসের বাড়িতে কেউ ছিল না।

ঘরে অনেক পাটকাঠিসহ শুকনা জ্বালানি (গাছের মরা ডালপালা) রাখা ছিল। মুহূর্তে আগুন ঘরের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে। এতে দুই শিশু দদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হয়। তাদের উদ্ধার করে প্রথমে কালুখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সেখানে তাদের প্রাথমিক চিকিৎসাসেবা দেওয়ার পর ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে সন্ধ্যা সাতটার দিকে হাসান মারা যায়। অপর দিকে হুজাইফাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হুজাইফা মারা যায়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মাঝবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী শরীফুল ইসলাম। তিনি বলেন, রান্নাঘরে আগুন নিয়ে খেলতে যাওয়ায় দুর্ঘটনাটি ঘটে। আগুন লাগার পর শিশু দুটি ভয়ে রান্নাঘরের এক পাল্লার দরজা ভেতর থেকে বন্ধ করে দিয়েছিল। দরজা ভেঙে প্রতিবেশীরা তাদের বের করেন।

কালুখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শাহ্ মো. সজীব জানান, ‘অগ্নিদদ্ধ হয়ে দুই শিশু মারা যাওয়ার বিষয়টি খুব দুঃখজনক ঘটনা। এসব বিষয়ে বাড়ির বড়দের সচেতন হতে হবে। মারা যাওয়া ওই দুই শিশুর অভিভাবকদের সহায়তা করা হবে।’