রেলওয়ে পুলিশ ও স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, আজ সকালে চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা ‘চট্টগ্রাম এক্সপ্রেস’ ট্রেনটি বারিয়ারহাট পৌরবাজার এলাকা অতিক্রম করার সময় শিরিনা বেগম নামের ওই গৃহবধূ রেললাইনের ওপর শুয়ে পড়েন। এ সময় ট্রেনচালক বার বার হর্ন দিলেও তিনি রেললাইন থেকে সরেননি। হঠাৎ ট্রেনের সামনে শুয়ে পড়া ও চালক গতিনিয়ন্ত্রণ করতে ব্যর্থ হওয়ায় ট্রেনে কাটা পড়ে ঘটনাস্থলে নিহত হন তিনি।

রেলওয়ে পুলিশের সীতাকুণ্ড ফাঁড়ির সহকারী উপপরিদর্শক জহিরুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, বারিয়ারহাট পৌরবাজারে ট্রেনে কাটা পড়ে এক নারীর মৃত্যুর খবর পেয়ে তাঁরা দুর্ঘটনাস্থলে যান। কিন্তু নিহত ওই নারীর লাশ তাঁরা পাননি। স্থানীয় বাসিন্দাদের মাধ্যমে তাঁরা জানতে পেরেছেন, ঘটনার পর নিহত নারীর স্বজনেরা এসে তাঁর লাশ নিয়ে গেছেন। ঘটনার বর্ণনা শুনে এটি ‘আত্মহত্যা’ বলে মনে হচ্ছে। তাঁরা বিষয়টি তদন্ত করে দেখছেন।