ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কমিউনিটি মেডিকেল কর্মকর্তা আশরাফুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, গতকাল রাত ৯টার দিকে গলার ভেতর বাদাম আটকে যাওয়ায় শিশুটিকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হলে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। কিন্তু অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় তাকে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করার পরামর্শ দেওয়া হয়। সেখানে যাওয়ার সময় পথে শিশুটির মৃত্যু হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শিশু রাফির মা গতকাল রাত ৮টার দিকে বসতঘরে বসে বাদাম খাচ্ছিলেন। একপর্যায়ে রাফি সেখান থেকে খোসাসহ একটি বাদাম নিয়ে মুখে দেয়। কিন্তু বাদাম গিলতে না পারায়, সেটি তার গলায় আটকে যায়। এ সময় সে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসা হয়। সেখান থেকে বগুড়া নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।