গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার (এসপি) এম এম শাকিলুজ্জামান। তিনি বলেন, জাবিউল্লাহ খানকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ বিষয়ে পরবর্তী আইনগত পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।

ভুক্তভোগীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, সদস্যের কাছ থেকে স্বপ্লমূল্যে বিভিন্ন পণ্য বিক্রির নাম করে টাকা নিত জেকা বাজার নামের প্রতিষ্ঠানটি। রাজবাড়ী শহরের নান্নু টাওয়ার ও পাবনায় এই কার্যক্রম পরিচালনা করা হতো। গত বছরের ২ নভেম্বর প্রতারণার অভিযোগ এনে প্রতিষ্ঠানটির অফিস সিলগালা করে দেয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। প্রতিষ্ঠান প্রধান জাবিউল্লাহ খানও আত্মগোপনে চলে যান।

এরপর গ্রাহকেরা প্রায় ৬০ কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ এনে রাজবাড়ী সদর থানায় মামলা করেন। টাকা ফেরত পাওয়ায় দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচিও পালন করেন বিনিয়োগকারীরা। এদিকে সম্প্রতি নিজ বাড়িতে সংবাদ সম্মেলন করে জাবিউল্লাহ খানকে ত্যাজ্যপুত্র ঘোষণা করেন তাঁর বাবা।

ব্যবসায়ী মেহেদী হাসান প্রিন্স বলেন, ‘আমি প্রথমে সদস্য হয়েছিলাম। পরে আমার অনেক আত্মীয়কে এই প্রতিষ্ঠানের সদস্য করি। প্রতিষ্ঠানটি সিলগালা করার মাসেও আমি ও আমার আত্মীয়েরা মিলে ২৩ লাখ টাকা বিনিয়োগ করি। সব মিলিয়ে আমার ও আত্মীয়দের অন্তত ৫০ লাখ টাকা বিনিয়োগ করা আছে। আত্মীয়দের কাছ থেকে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন কথাবার্তা শুনতে হচ্ছে।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন