পুলিশ ও স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, মিরাবাজার আগপাড়া এলাকার প্রবাসী দুদু মিয়ার বাড়িতে সম্প্রতি এক নারী একটি ফ্ল্যাট ভাড়া নেন। ওই ফ্ল্যাটে গতকাল রাতে শোরগোলের আওয়াজ পাওয়া যায়। পরে ওই বাড়ি থেকে চারজন যুবককে বেরিয়ে আসতে দেখে তাঁদের ডাকাত সন্দেহে স্থানীয় লোকজন গণপিটুনি দেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ওই ফ্ল্যাটে অভিযান চালিয়ে তিন নারী ও দুই যুবককে আটক করেছে। তবে আটক ব্যক্তিদের পরিচয় প্রকাশ করেনি পুলিশ।

পুলিশ জানায়, ওই বাড়ির মালিক প্রবাসী। বাড়িটি দেখাশোনা করেন অন্য এক ব্যক্তি। তাঁর কাছ থেকেই ওই নারী ফ্ল্যাটটি ভাড়া নিয়ে বসবাস করছিলেন। ভাড়া নেওয়ার সময় ওই নারী বলেছিলেন, তাঁর স্বামীও প্রবাসী। তবে ওই নারী বাড়িতে অসামাজিক কর্মকাণ্ড চালাতেন বলে দাবি করেছে পুলিশ। ওই যুবকেরা ওই বাড়িতে অসামাজিক কর্মকাণ্ডে অংশ নিতে গিয়েছিলেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে ওই এলাকার এক বাসিন্দা বলেন, গতকাল রাতে দুদু মিয়ার বাড়িতে ডাকাতি হয়েছে, এমন তথ্য ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয় লোকজন ওই বাড়ির নিচে জড়ো হন। একপর্যায়ে ওই বাড়ি থেকে সন্দেহজনক চার যুবককে বেরিয়ে যেতে দেখেন তাঁরা। পরে ওই যুবকদের আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তাঁরা কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি। এ সময় স্থানীয় লোকজন তাঁদের ডাকাত সন্দেহে মারধর শুরু করেন। পরে পুলিশ উপস্থিত হয়ে ওই বাড়ি থেকে নারী ও পুরুষসহ পাঁচজনকে ধরে নিয়ে গেছে।

সিলেট কোতোয়ালি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল খায়ের বলেন, প্রাথমিকভাবে ওই ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়ে সেখানে অসামাজিক কার্যকলাপ চালানো হতো বলে জানা গেছে। আহত যুবক শিল্পাঞ্চল পুলিশ সদস্য বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করবে।