বিএনপির ডাকা হরতালের সমর্থনে সিলেট সিটির সাবেক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর নেতৃত্বে মিছিল। আজ দুপুরে সিলেট নগরের বন্দরবাজার এলাকায়
ছবি: প্রথম আলো

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের তফসিল বাতিলের দাবিতে সিলেট নগরে বিএনপির কর্মসূচিতে নেমেছেন সদ্য সাবেক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়রের দায়িত্ব হস্তান্তরের পর এই প্রথম তিনি দলীয় কর্মসূচিতে প্রকাশ্যে অংশ নিলেন।

আজ শনিবার নগরের বন্দরবাজার এলাকায় বিএনপির হরতাল সফল করতে বিক্ষোভ মিছিলের নেতৃত্ব দেন আরিফুল হক চৌধুরী। এ সময় তাঁর সঙ্গে বিএনপি ও এর অঙ্গসংগঠনের কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় পর্যায়ের বিপুলসংখ্যক নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন

আমাকে জনগণ থেকে দূরে রাখার চেষ্টা করা হচ্ছে: আরিফুল হক

আরিফুল হক চৌধুরী বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পদে রয়েছেন। গত ১৬ সেপ্টেম্বর তাঁকে দলটির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্যপদ থেকে এই পদে পদোন্নতি দেওয়া হয়। তার আগে গত ২১ জুন অনুষ্ঠিত সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে তিনি দলীয় নির্দেশনা মেনে অংশ নেননি। ওই নির্বাচনে জয়ী হন আওয়ামী লীগের প্রার্থী মো. আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী। ৭ নভেম্বর আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর কাছে মেয়রের দায়িত্ব হস্তান্তর করেন আরিফুল হক চৌধুরী।

এর পর থেকে আরিফুল হক চৌধুরীকে প্রকাশ্যে দলীয় কোনো কর্মসূচিতে দেখা যায়নি। এ নিয়ে নিজ দল ও এর অঙ্গসংগঠনের নেতা-কর্মীদের অভিযোগ ছিল। তবে এবার তিনি কর্মসূচিতে হাজির হয়ে সমালোচকদের জবাব দিলেন।

আরও পড়ুন

কিছু বিষয় প্রধানমন্ত্রীকেই বলতে চাই: আরিফুল হক চৌধুরী

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আজ বেলা দুইটার দিকে বন্দরবাজার এলাকার কালেক্টরেট মসজিদের সামনে থেকে বিএনপির ডাকা হরতালের সমর্থনে মিছিল বের হয়। এতে নেতৃত্ব দেন আরিফুল হক চৌধুরী। এ সময় তাঁর সঙ্গে বিএনপির কেন্দ্রীয় সহক্ষুদ্রঋণ ও কুটিরশিল্পবিষয়ক সম্পাদক আবদুর রাজ্জাকসহ স্থানীয় নেতা-কর্মীরা ছিলেন।

বিক্ষোভ মিছিলে আগামীকাল রোববার থেকে ৪৮ ঘণ্টার হরতাল সফলের আহ্বান জানানো হয়। পাশাপাশি তফসিল বাতিলের দাবি জানানো হয়। বিক্ষোভ মিছিলটি নগরের বন্দরবাজার চুড়িপট্টি এলাকায় গেলে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দেন আরিফুল হক চৌধুরী।

আরও পড়ুন

সরকারের পদত্যাগ ও তফসিলের প্রতিবাদে রবি ও সোমবার বিএনপির হরতাল

এ সময় তিনি আগামীকাল থেকে ৪৮ ঘণ্টার হরতাল সফলের আহ্বান জানান। বিএনপির আন্দোলন–সংগ্রামে সবাইকে অংশগ্রহণের আহ্বান জানিয়ে আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, ‘অবৈধ তফসিল আমরা মানি না। গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনতে হবে। দেশের মানুষের স্বাধীনতা ফিরিয়ে আনতে হবে। প্রত্যেককে প্রত্যেকের পাড়া–মহল্লায় হরতাল সফল করতে হবে।’

আরও পড়ুন

আগামী রবি–সোমবার ৪৮ ঘণ্টার হরতাল ডাকল গণ অধিকার পরিষদ