মামলা ও আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১৫ সালের ৩ মার্চ সন্ধ্যায় তৃতীয় শ্রেণির ওই ছাত্রী স্থানীয় বাজার থেকে বাড়ি ফিরছিল। এ সময় ইব্রাহিম মিয়া ওই ছাত্রীকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ করেন। ঘটনার পরদিন ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে ইব্রাহিমকে আসামি করে আটপাড়া থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। তদন্ত শেষে পুলিশ ওই বছরের ডিসেম্বরে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেয়। মামলায় সাত সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আজ বুধবার আদালতের বিচারক ওই রায় দেন।

রাসেল আহমেদ খান বলেন, রায় ঘোষণার পর ইব্রাহিম মিয়াকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। আসামিপক্ষের আইনজীবী ছিলেন আসাদুল হক আকন্দ।