স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘ক্ষমতায় গেলে বিএনপি কী করবে, তা তারা বলে না। ক্ষমতায় গেলে মানুষ মারবে, না খাইয়ে রাখবে নাকি গ্রেনেড হামলা করে মানুষ মারবে, তা তারা বলে না। বিএনপি মানুষের জন্য ঘরবাড়ি নির্মাণ করে দেবে, আরও ভাতা দেবে এমন কিছু তো বলে না।’

জাহিদ মালেক আরও বলেন, ‘সামনে জাতীয় সংসদ নির্বাচন আসছে। এ জন্য তারা রাস্তাঘাটে মিছিল করে, ভাঙচুর করে, আগুন দেয়, গাড়ি পোড়ায়। তারা ইটপাটকেল মেরে মানুষসহ পুলিশ আহত করে। তারা বলে আমরা ক্ষমতায় যাব। বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে আওয়ামী লীগকে ধাক্কা দিয়ে ক্ষমতায় যেতে চায়। কারণ তারা ভোটের রাজনীতিতে বিশ্বাস করে না।’

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, প্রতিটি মানুষকে ভ্যাকসিন দিতে ১০ থেকে ১৫ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। অনেক ধনী দেশ করোনা চিকিৎসা ও ভ্যাকসিন বিনা মূল্যে দেয়নি। বাংলাদেশে আওয়ামী লীগ সরকার বিনা মূল্যে ভ্যাকসিন ও করোনার চিকিৎসাসেবা দিয়েছে।

বিএনপি-জামায়াত ক্ষমতায় থাকতে লুটপাট করেছে দাবি করে জাহিদ মালেক বলেন, ‘তারা সার থেকে লুটপাট করেছে, বিদ্যুৎ থেকে লুটপাট করেছে। দেশের মানুষ সবই জানে। বিএনপি-জামায়াত ক্ষমতায় এলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া সব সামাজিক সুরক্ষা ভাতা বন্ধ করে দেবে। তখন কেউ বয়স্ক ভাতা, বিধবা ভাতা ও প্রতিবন্ধী ভাতা পাবেন না।’ এ জন্য তিনি আবার নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগকে জয়ী করার আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম মহীউদ্দীন, জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি আবদুল মজিদ, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক সুলতানুল আজম খান, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সুদেব সাহা, জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক আবদুর রাজ্জাক, যুগ্ম আহ্বায়ক মাহাবুবুর রহমান ওরফে জনি প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে মানিকগঞ্জ পৌর এলাকার দুস্থ ও অসহায় মানুষের মধ্যে ১ হাজার কম্বল বিতরণ করা হয়।