হাইওয়ে পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন বলছেন, আবু নাঈম মোটরসাইকেল চালিয়ে নরসিংদী থেকে কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে গ্রামের বাড়িতে যাচ্ছিলেন। পথে সোনাইমুড়ি টিলাসংলগ্ন এলাকায় পৌঁছানোর পর কিছু একটার সঙ্গে ধাক্কা লেগে তিনি হঠাৎ করে মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়েন। এ সময় পেছন থেকে আসা একটি ট্রাক তাঁকে চাপা দিয়ে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই নাঈমের মৃত্যু হয়।

খবর পেয়ে রাত সাড়ে ১০টার দিকে ইটাখোলা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে তাঁর লাশ উদ্ধার করেন। ঘটনাস্থলে পড়ে থাকা একটি মুঠোফোনের সূত্র ধরে নিহত যুবকের পরিচয় শনাক্ত করে হাইওয়ে পুলিশ। পরে সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরির পর তাঁর লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।

ইটাখোলা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. নূর হায়দার তালুকদার বলেন, চলন্ত মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়ার পর পেছন থেকে আসা ট্রাকের চাপায় ওই যুবক নিহত হন। নিহত যুবকের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। তাঁর স্বজনদের সঙ্গে আলোচনা করে পরে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন