জেলা বিএনপির সদস্যসচিব মো. রফিকুল ইসলাম হিলালী আজ সকালে মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, ‘গণতন্ত্রের মুক্তির জন্য বিএনপির কোনো বিকল্প নেই। বিএনপি দেশে গণতন্ত্র আবার ফিরিয়ে আনতে আন্দোলন-সংগ্রাম চালাচ্ছে। তাই গণতন্ত্র মুক্তিকামীরা জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপির পতাকাতলে আসতে শুরু করেছেন। গতকাল রাতে আওয়ামী লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও জাতীয় পার্টির অন্তত ৫১ জন নেতা-কর্মী বিএনপিতে যোগ দিয়েছেন। অতীত কর্মকাণ্ড পর্যালোচনায় কোনো অসন্তোষ না থাকায় তাঁদের বিএনপিতে যোগদানের সুযোগ করে দেওয়া হয়েছে। এর আগেও গত ১৩ আগস্ট আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের অন্তত ৪২ জন নেতা-কর্মী বিএনপিতে যোগদান করেন।’

আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে আমার অনেক ত্যাগ রয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে দল করে কোনো মূল্যায়ন পেলাম না। দলে তৃণমূল নেতা-কর্মীদের মতের কোনো মূল্য নেই। এ ছাড়া বলাইশিমুল খেলার মাঠে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর নির্মাণে বাধা দেওয়া অভিযোগ এনে আমাকেসহ পরিবারের লোকজনের নামে মিথ্যা মামলা দেওয়া হয়েছে। এসব কারণে ক্ষুব্ধ হয়ে বিএনপিতে যোগদান করেছি।
মো. জসিম উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক, বলাইশিমুল ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগ, কেন্দুয়া, নেত্রকোনা

বিএনপিতে যোগ দেওয়া উপলক্ষে উপজেলা জাতীয় পার্টির সাংগঠনিক সম্পাদক মো. ইকবাল কবির আজ বেলা সোয়া ১১টার দিকে প্রথম আলোকে বলেন, ‘জাতীয় পার্টির নিজস্ব কোনো নেতৃত্ব নেই। ক্ষমতাসীন দলের লেজুড়বৃত্তির দল হিসেবে এখন সবাই মূল্যায়ন করে। এ ছাড়া আমরা পারিবারিকভাবে বিএনপি। শহীদ জিয়ার আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে ও জনগণের ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে বিএনপিতে যোগদান করেছি।’

বিএনপিতে যোগদান করা বলাইশিমুল ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জসিম উদ্দিন বলেন, ‘আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে আমার অনেক ত্যাগ রয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে দল করে কোনো মূল্যায়ন পেলাম না। দলে তৃণমূল নেতা-কর্মীদের মতের কোনো মূল্য নেই। এ ছাড়া বলাইশিমুল খেলার মাঠে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর নির্মাণে বাধা দেওয়া অভিযোগ এনে আমাকেসহ পরিবারের লোকজনের নামে মিথ্যা মামলা দেওয়া হয়েছে। এসব কারণে ক্ষুব্ধ হয়ে বিএনপিতে যোগদান করেছি।’