স্থানীয় বাসিন্দাদের বরাত দিয়ে ৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জি এম আল আমিন বলেন, আজ সকালে শিশুটি বাড়ির উঠানে খেলছিল। বাড়ির লোকজনের অগোচরে একপর্যায়ে সে পাশের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নির্মাণাধীন সেপটিক ট্যাংকে পড়ে যায়। বৃষ্টির কারণে ওই খোলা ট্যাংকে পানি জমে। অনেকক্ষণ ওই শিশুকে না দেখে বাড়ির লোকজন খোঁজাখুঁজি শুরু করেন। একপর্যায়ে তাঁরা সেপটিক ট্যাংক থেকে শিশুটিকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করেন।

মোংলা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বিকাশ চন্দ্র ঘোষ প্রথম আলোকে বলেন, শিশুটিকে সেপটিক ট্যাংক থেকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। এই ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন