নিহত হাশেম মোল্লা নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার কাশিপুর ইউনিয়নের চর কাশিপুর এলাকার প্রয়াত নূর হোসেনের ছেলে। অভিযুক্ত আল আমিন ওই এলাকার জলিল মিয়ার ছেলে।

নিহত ব্যক্তির স্বজনদের বরাত দিয়ে ফতুল্লা মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মোস্তফা কামাল জানান, ১৫ বছর আগে পুষ্পা আক্তারের সঙ্গে একই এলাকার আল আমিনের বিয়ে হয়। তাঁদের সংসারে তিনটি ছেলেসন্তান রয়েছে। বিয়ের পর থেকে প্রায় সময় পুষ্পা আক্তারকে নির্যাতন করতেন আল আমিন। এ নিয়ে একাধিকবার বিচার সালিসও হয়েছে। গত কয়েক দিন আগেও তাঁদের নিয়ে সালিস হয়েছে।

এসআই মোস্তফা কামাল বলেন, এরপরও গতকাল রাতে আল আমিন তাঁর স্ত্রীকে মারধর করলে বড় ভাই হাশেম মোল্লা প্রতিবাদ করেন। এতে আলামিন ক্ষিপ্ত হয়ে হাশেম মোল্লার বুকে ছুরিকাঘাত করে তাকে গুরুতর আহত করেন। আশপাশের লোকজন গুরুতর অবস্থায় তাঁকে উদ্ধার করে প্রথমে ভিক্টোরিয়া হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল দিনগত রাত দেড়টার দিকে তাঁর মৃত্যু হয়।

ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রিজাউল হক প্রথম আলোকে বলেন, পারিবারিক বিরোধের জের ধরে এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় নিহত হাশেম মোল্লার ভাই বাদী হয়ে হত্যা মামলা করেছেন। অভিযুক্ত আল আমিনকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন