এ বিষয়ে তিনি বলেন, সমিতির প্রধান কার্যালয়ের নির্দেশে ডিজিএম সাজ্জাদুর রহমানকে সমায়িক বরখাস্ত করে দাশুড়িয়া কার্যালয় থেকে ময়মনসিংহ তত্ত্বাবধায়কের কার্যালয়ে ন্যস্ত করা হয়েছে।

ঘটনা তদন্তে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে উল্লেখ করে আকমল হোসেন বলেন, সোমবার থেকে কমিটি কাজ শুরু করবে। তবে কমিটিতে কারা আছেন, তা এখনো জানা যায়নি। তদন্ত শেষে কমিটি প্রতিবেদন দিলে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, গত বুধবার সকালে ধারণ করা ভিডিওটি গতকাল শনিবার ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। ভিডিওটিতে দেখা যায়, দাশুড়িয়া শাখা কার্যালয়ের ডিজিএমের হাতে ৫০০ টাকার একটি বান্ডিল দিচ্ছেন এক গ্রাহক। এ সময় ওই গ্রাহকের পেছনে থাকা এক ব্যক্তি ভিডিও ধারণ করছিলেন। তিনি গ্রাহককে প্রশ্ন করেন, ‘কিসের টাকা দিলেন?’ গ্রাহক বলেন, ‘মিষ্টি খেতে চাইছিলেন, তাই।’ এরপর ডিজিএম ভিডিও ধারণের বিষয়টি টের পেয়ে টাকাটা ফেরত দেন এবং উত্তেজিত হয়ে ওঠেন।

ভিডিওটি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ার পর ওই গ্রাহক অভিযোগ করেন, ঘুষ দাবি করায় টাকা দিচ্ছিলেন। তবে ডিজিএমের দাবি, তাঁকে ফাঁসাতে বকেয়া বিদ্যুৎ বিলের টাকা দিতে গিয়ে সেই দৃশ্য ভিডিও করা হয়েছে। ঘটনায় তিনি থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন