মামলার আরজিতে বলা হয়েছে, ২২ জুলাই সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে রাজশাহীর বাঘা উপজেলার বারশতদিয়াড় হাবিবুরের মোড়ে এক জনসভায় আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্পর্কে অশালীন বক্তব্য দিয়েছেন জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু সাঈদ।

আমি পরিষ্কার ভাষায় আইনমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর উদ্দেশে বলছি, আবু সাঈদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। আজকে থেকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে তাঁকে যদি গ্রেপ্তার না করা হয়, তাঁর বাড়িঘরের দায়দায়িত্ব কিন্তু আমরা নেব না।
শাহরিয়ার আলম, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ও রাজশাহী-৬ আসনের সংসদ সদস্য

তবে অভিযুক্ত আবু সাঈদ দাবি করেছেন, তিনি কোনো অশালীন বক্তব্য দেননি। এটি প্রতিহিংসামূলক রাজনৈতিক মামলা। রাজনীতির কারণেই তাঁর বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।

মামলা হলেও গ্রেপ্তার না হওয়ায় আজ রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগ বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশের আয়োজন করে। রাজশাহী নগরের সাহেববাজার বড় মসজিদের সামনে এ সমাবেশে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ও রাজশাহী-৬ আসনের সংসদ সদস্য শাহরিয়ার আলম, রাজশাহী-১ আসনের সংসদ সদস্য ওমর ফারুক চৌধুরী, রাজশাহী-৩ আসনের সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিন, মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামাল, সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার, জেলার সাধারণ সম্পাদক আবদুল ওয়াদুদ দারা প্রমুখ।

সমাবেশে প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও আইনমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে বলেন, ‘আমি শুনেছি আগামীকাল ভুবন মোহন পার্কে বিএনপি জমায়েত করবে। সেখানে আবু সাঈদ আসবেন। আপনারা মহানগর আওয়ামী লীগ কী করবেন, আপনাদের ব্যাপার। কিন্তু আমি পরিষ্কার ভাষায় আইনমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর উদ্দেশে বলছি, আবু সাঈদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। আজকে থেকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে তাঁকে যদি গ্রেপ্তার না করা হয়, তাঁর বাড়িঘরের দায়দায়িত্ব কিন্তু আমরা নেব না।’

রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল ওয়াদুদ বলেন, তাঁরা গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া অনুযায়ী আবু সাঈদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থার বাস্তবায়ন করবেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন