বন্য প্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ হবিগঞ্জ কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, আজ সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত বন বিভাগ উপজেলার বহরা ইউনিয়নের রাজাপুর ও চৌমুহনী ইউনিয়নের কমলপুর গ্রামে অভিযান চালায়। এ সময় একটি ডাহুক, একটি কুরা, একটি সরালি, চারটি ঘুঘুসহ মোট সাতটি পাখি উদ্ধার করা হয়। অভিযানে র‍্যাবের সদস্যরাসহ স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘পাখি প্রেমিক সোসাইটি’র সদস্যরা বন বিভাগকে সহযোগিতা করেন।

হবিগঞ্জের বন্য প্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের বন কর্মকর্তা তোফায়েল আহমেদ চৌধুরী বলেন, তাঁরা খবর পান, ওই গ্রামের কিছু মানুষ পটাশ ও বিষটোপ দিয়ে ফাঁদ পেতে পাখি শিকার করছেন। শিকার করা পাখি বন্দী করে রাখা হয়েছে।

তোফায়েল আহমেদ চৌধুরী প্রথম আলোকে বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আজ র‍্যাবের সহযোগিতায় ওই গ্রামে অভিযান চালায় বন বিভাগ। অভিযানে নানা ধরনের সাতটি পাখি উদ্ধার করা হয়েছে। পাখিগুলো প্রাকৃতিক পরিবেশে উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন