স্থানীয় মাছ ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, এই বাজারে পাওয়া যায় তুরাগ নদ ও গোয়ালিয়া বিলের সুস্বাদু সব মাছ। এর মধ্যে রয়েছে কই, শিং, ট্যাংরা, পাবদা, মেনি, বাইলা, পোয়া, কাজলি, কাচকি, মলা, পুঁটি, টেকচাঁদা, দারকিনাসহ বিভিন্ন প্রজাতির ছোট মাছ। এসব ছোট মাছের কদর অনেক বেশি। ছোট মাছের পাশাপাশি মাঝেমধ্যে জেলেদের জালে ধরা পড়ে মাঝারি আকারের রুই, কাতলা, বোয়াল, চিতলসহ বিভিন্ন প্রজাতির বড় মাছ।

default-image

রোববার সরেজমিনে দেখা যায়, ভোর সাড়ে পাঁচটায় তুরাগ নদ ও গোয়ালিয়া বিল থেকে একে একে নৌকা নিয়ে জেলেরা রঘুনাথপুর বাজারের ঘাটে নোঙর করছেন। সেখানে বসেই ছোট ছোট তরতাজা মাছগুলো বাছাই করে খারিতে রাখছেন। বাছাই করা শেষে বাজারে ওঠানো শুরু হয় সকাল ছয়টা থেকে। অবশ্য তার আগেই বাজারে দূরদূরান্ত থেকে আসা ক্রেতা ও পাইকারেরা ভিড় করেন। এরপর শুরু হয় মাছের হাঁকডাক। কে কত দাম বেশি দিয়ে নিতে পারেন, শুরু হয় সেই প্রতিযোগিতা। সাধারণ ক্রেতারাও ব্যাপারীর মতো ডাক দিয়ে মাছ কিনছেন। পাইকার-মহাজনদেরও উপচে পড়া ভিড়। নৌকায় করে বিভিন্ন প্রজাতির মাছ নিয়ে আসছেন জেলেরা। এসব মাছের ডাক ওঠাচ্ছেন পাইকারেরা। মাছ কিনে পাইকারেরা গাজীপুরের বিভিন্ন বাজারে নিয়ে যাচ্ছেন।

উপজেলার সফিপুর আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রতিষ্ঠাতা হাবিবুর রহমান ভোর সাড়ে পাঁচটায় এসেছেন ওই বাজারে দেশি মাছ কিনতে। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, বড় বাজারগুলোতে বেশির ভাগ চাষের মাছ বিক্রি হয়। তুরাগ নদ বা বিলের দেশি মাছ সাধারণত পাওয়া যায় না। তাই রঘুনাথপুরে বিলের মাছের বেশ চাহিদা। এই মাছের স্বাদও বেশি।

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের কোনাবাড়ী বাজারের পাইকারি মাছ বিক্রেতা আফজাল হোসেন বলেন, তুরাগ নদ ও গোয়ালিয়া বিলের তরতাজা ছোট মাছের কদর অনেক বেশি। গাজীপুরের বিভিন্ন এলাকার ভোজনরসিক মানুষ আগে থেকেই অনেক সময় মাছের অর্ডার দেন। এই মাছের স্বাদ যাঁরা একবার নিয়েছেন, তাঁরা বারবার কিনতে আসেন।

রঘুনাথপুর মাছ বাজারের সভাপতি দুর্লভ দাস বলেন, রঘুনাথপুর বাজারের যে মাছ বিক্রি হয়, তার সবই দেশি এবং আশপাশের বিলের। এখানে চাষের মাছ বিক্রি হয় না। প্রতিদিন ভোর পাঁচটায় মাছ আসা শুরু হয়। সকাল সাতটার মধ্যেই মাছ বিক্রি শেষ হয়ে যায়। এ বাজারে এখানে প্রতিদিন এক-দেড় লাখ টাকার দেশি মাছ কেনাবেচা হয়ে থাকে।

কালিয়াকৈর উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. সলিমুল্লাহ প্রথম আলোকে বলেন, রঘুনাথপুরের মাছের খ্যাতি এখন গাজীপুর জেলা সদরসহ আশপাশের জেলাগুলোতে ছড়িয়ে পড়েছে। এখানে প্রচুর তাজা দেশি মাছ পাওয়া যায়। বিশেষ করে এখানকার ছোট মাছ খুবই সুস্বাদু।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন