নৌ পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা গেছে, গতকাল ১৪ যুবক একটি নৌকা নিয়ে নিকলী হাওরে বেড়াতে যান। হাওর ঘুরে ফেরার পথে সন্ধ্যা পৌনে সাতটার দিকে তাঁরা উপজেলার লুন্দিয়া খলাপাড়া এলাকায় পৌঁছালে ডাকাত দলের কবলে পড়েন। এ সময় ডাকাত দলটি অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে তাঁদের কাছ থেকে ১২টি মুঠোফোন ও নগদ ৫০ হাজার টাকা নিয়ে যায়।

মামলার বাদী মাকসুদ হাসান বলেন, ‘ডাকাত দলটি নৌকায় করে এসে আমাদের ওপর চড়াও হয়। নৌকায় উঠেই মারধর করে ভীতিকর পরিবেশ সৃষ্টি করে। পরে আমাদের সর্বস্ব কেড়ে নেয়।’

পুলিশি হেফাজতে থাকা জনপ্রতিনিধি মো. শহীদ সাংবাদিকদের বলেন, তিনি ডাকাতির সঙ্গে জড়িত নন। তবে প্রকৃত ডাকাতদের ধরিয়ে দেওয়ার বিষয়ে প্রয়োজনে তিনি সহযোগিতা করতে পারবেন।

ভৈরব নৌ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ সাইদুর রহমান বলেন, গতকাল সন্ধ্যায় ডাকাতির ঘটনায় ইউপি সদস্য শহীদ জড়িত বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। ডাকাতি করার সময় দুর্বৃত্তরা এলাকাবাসীর বাধার মুখে পড়েছিল। তাড়া খেয়ে ডাকাত দল তাদের নৌকা ফেলে পালিয়ে যায়। নৌকাটি এখন পুলিশি হেফাজতে রয়েছে। এ মামলায় এখন পর্যন্ত একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত অন্যদের ধরতে অভিযান চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন