কুষ্টিয়া পৌরসভার বর্ধিত জুগিয়া সবজি ফার্মপাড়ায় নিলুফার বাড়ি। শহরের ভেতর হলেও ওই এলাকায় এখনো গ্রামীণ পরিবেশ। প্রধান সড়ক থেকে হেঁটে প্রায় ৫০০ গজ গিয়ে নিলুফার বাড়ি। পুরো পথে ইট বিছানো। তবে বৃষ্টির পানিতে শেওলা ও ঘাস জমে ছিল। আজ বৃহস্পতিবার সকালে দেখা যায়, শ্রমিকেরা সেগুলো ঘষেমেজে পরিষ্কার করছেন।

গত মঙ্গলবার সকালে নিলুফাদের বাড়িতে গিয়েছিলেন প্যানেল মেয়র শাহিন উদ্দীন। নিলুফার মা ও বোনের সঙ্গে তিনি কথা বলেছেন। কোনো সমস্যা আছে কি না, খোঁজখবর নেন। এ সময় নিলুফার বাড়ির উঠানে পানি জমে থাকতে দেখে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন। এরপর গতকাল বুধবার বিকেল থেকেই নিলুফার বাড়ির উঠানে বালু ফেলা শুরু হয়। এর আগে নালা কেটে পানি বের করে নেওয়া হয়। বালু ফেলে উঠান উঁচু করা হয়।

default-image

সড়ক পরিষ্কারের কাজ করছিলেন শ্রমিক আনিসুর রহমান। তিনি বলেন, ‘ফুটবল খেলায় জিতে আসা নিলুফার বাড়িতে বালু ফেলা হয়েছে। এখন রাস্তা পরিষ্কার করা হচ্ছে। নিলুফা বাড়ি আসবে—এ জন্য সবকিছু চকচকে করা হচ্ছে।’

নিলুফার মা বাছিরন আক্তার বলেন, ‘নিলুফা এখন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনেই আছে। এখনো ছুটি পায়নি। রাতে কথা হয়েছে। ছুটি পেলেই বাড়িতে আসবে। এখন মন ছটফট করছে। কাউন্সিলর বাড়ির উঠানে বালু ফেলে দিয়েছেন। নিলুফার বাড়ির আসার পথও পরিষ্কার করেছেন। খুবই ভালো লাগছে।’

শাহিন উদ্দীন বলেন, সাফজয়ী নিলুফা এই এলাকার গর্ব। তিনি বাড়িতে এলে তাঁকে সংবর্ধনা দেওয়া হবে। তাঁকে নিয়ে আনন্দ উৎসব করা হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন