নেত্রকোনা সদর উপজেলার দুগিয়া আব্বাছিয়া এমদাদুল উলুম ফাজিল মাদ্রাসার নতুন একাডেমিক ভবন উদ্বোধন সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আশরাফ আলী খান। শনিবার দুপুরে
ছবি: প্রথম আলো

নেত্রকোনায় সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আশরাফ আলী খান বলেছেন, একসময় বাংলাদেশকে অনেকে ‘তলাবিহীন ঝুড়ির দেশ’ বলে উপহাস করত। কিন্তু এখন আর এ কথা কেউ বলতে সাহস পায় না। শিক্ষাবান্ধব এই সরকারের টানা ১৪ বছরে শিক্ষা খাতে বৈপ্লবিক পরিবর্তন এসেছে। বছরের প্রথম দিন বিনা মূল্যে শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দেওয়া হচ্ছে। শিক্ষা অবকাঠামোতেও বিপ্লব এসেছে। এসবই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বের জন্য সম্ভব হয়েছে।

আজ শনিবার দুপুরে নেত্রকোনা সদর উপজেলার দুগিয়া আব্বাছিয়া এমদাদুল উলুম ফাজিল মাদ্রাসার চারতলাবিশিষ্ট একাডেমিক ভবন উদ্বোধনের সময় প্রধান অতিথি হয়ে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার মাদ্রাসা শিক্ষাকে আধুনিকায়ন করেছে। মাদ্রাসার শিক্ষার্থী বলে এখন আর কেউ উপহাস করে না। মাদ্রাসা থেকে পাস করে সব চাকরিতে যোগ দেওয়ার সুযোগ রয়েছে। শিক্ষার প্রধান লক্ষ্য হচ্ছে একজন ভালো মানুষ তৈরি করা। সবার ভালো মানুষ হওয়া খুব দরকার। এই দেশ অনেক ত্যাগের বিনিময়ে অর্জিত হয়েছে। দেশে প্রত্যেক মানুষেরই সমান অধিকার রয়েছে। একাডেমিক শিক্ষার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের আরও অনেক কিছুই শিখতে হবে, জানতে হবে। যাতে ভবিষ্যতে দায়িত্ববান নাগরিক হওয়া যায়।

বর্তমান সরকারের টানা তিন মেয়াদের সাফল্য তুলে ধরে বক্তব্যের এক পর্যায়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, উন্নয়নের এই ধারা অব্যাহত রাখতে হলে, শেখ হাসিনা সরকারকে আবারও ক্ষমতায় রাখতে হবে। কোনোভাবেই যেন বিএনপি-জামায়াত ক্ষমতায় না আসতে পারে। বিএনপি-জামায়াত ক্ষমতায় এলে ধ্বংসযজ্ঞ, প্রাণহানি ছাড়া দেশে আর কিছুই হয় না।

মাদ্রাসার ব্যবস্থাপনা কমিটি সভাপতি ও যুবলীগ নেতা এ কে এম আজারুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের আরও বক্তব্য দেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা অসিত কুমার সরকার, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. আতাউর রহমান, জেলা রেড ক্রিসেন্টের সাধারণ সম্পাদক গাজী মোজাম্মেল হোসেন,  মাদ্রাসার অধ্যক্ষ আ খ ম মহিউদ্দিন খান, আমতলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আব্দুর রউফ প্রমুখ।