মুসলিম মিয়ার চাচাতো ভাই মানিক মিয়া বলেন, গতকাল বিকেলে জালুয়াপাড়া এলাকার একটি মাঠে একদল শিশু ফুটবল খেলছিল। খেলার একপর্যায়ে শিশুদের মধ্যে বাগ্‌বিতণ্ডা শুরু হয়। এ সময় মুসলিম মিয়াসহ সেখানে উপস্থিত লোকজন বিষয়টি মীমাংসা করতে যান। একপর্যায়ে স্থানীয় লোকজন নিজেদের মধ্যে বাগ্‌বিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়লে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। মানিক মিয়ার দাবি, মালেক মিয়া ও উজ্জ্বল মিয়া মুসলিম মিয়াকে বেধড়ক মারধর করেন। এতে মুসলিম মিয়া গুরুতর আহত হন।

পরে স্থানীয় লোকজন মুসলিম মিয়াকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে কিশোরগঞ্জ সদর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ দাউদ বলেন, শিশুদের ফুটবল খেলা নিয়ে বাগ্‌বিতণ্ডাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামের বাসিন্দাদের সংঘর্ষে একজন নিহত হয়েছে বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় ইতিমধ্যে দুজনকে আটক করা হয়েছে। নিহত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ সদর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন