কদলপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মুহাম্মদ আলমগীর প্রথম আলোকে বলেন, ঘটনার দিন সন্ধ্যায় আবু তৈয়বের স্ত্রী আফসানা বাড়ির রান্নাঘরে আদিলকে কোলে নিয়ে সন্ধ্যার নাশতা বানাচ্ছিলেন। এর মধ্যেই হঠাৎ আদিল মায়ের কোল থেকে কড়াইয়ের ওপর ঝাঁপ দিয়েছিল। এতে আদিলের শরীরের ৭০ ভাগ ঝলসে যায়। পরে আদিলকে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য আদিলকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল।

গতকাল সন্ধ্যায় ঘটনা তদন্তে ওই শিশুর বাড়িতে যান রাউজান থানার উপপরিদর্শক জহিরুল ইসলাম। জহিরুল ইসলাম বলেন, ওই শিশুর পরিবারের পক্ষ থেকে মৃত্যুর ঘটনায় কোনো অভিযোগ নেই। তাই ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ দাফনের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।