ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্র জানা গেছে, কর্ণফুলী উপজেলার ওই স্কুলছাত্রীকে (১১) বিভিন্ন সময় সোহেল ও রহিম উত্ত্যক্ত করতেন। পরে স্থানীয় লোকজনের অভিযোগের ভিত্তিতে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পিযুষ কুমার চৌধুরী ওই এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় সোহেল ও রহিমকে হাতেনাতে আটক করে পুলিশ। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত সোহেলকে ১৫ দিন ও রহিমকে ৭ দিনের কারাদণ্ড দেন।

পিযুষ কুমার চৌধুরী বলেন, উপজেলার কিছু এলাকায় নারীদের উত্ত্যক্ত করাসহ বিভিন্ন অপরাধ বেড়ে যাওয়ার অভিযোগ রয়েছে। এসব এলাকায় নিয়মিত ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালনা করা হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন