মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, আটক ব্যক্তির নাম দেলোয়ার হোসেন দেলু (৩৮)। তিনি লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার ভোলাকোট ইউনিয়নের আতাকরা গ্রামের বাসিন্দা। আটকের পর দেলোয়ারকে সংস্থার কার্যালয়ে নিয়ে গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। আজ বৃহস্পতিবার তাঁকে নোয়াখালীর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হবে।

অভিযান পরিচালনাকারী মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা জানান, তাঁরা জানতে পারেন চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা একটি বাসে চড়ে এক ব্যক্তি মাদকদ্রব্য নিয়ে নোয়াখালীর দিকে আসছেন। এরপর জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের একটি দল চৌমুহনীর লাইফ কেয়ার হাসপাতালের সামনে অবস্থান নেয়। রাত ১০টার দিকে বাসটি আসার পর সেটিতে তল্লাশি চালিয়ে দেলোয়ারকে আটক করা হয়। এ সময় তাঁর কাছে ১ হাজার ৫০০টি ইয়াবা পাওয়া যায়। পরবর্তী সময় এক্স–রে করে তাঁর পেটের ভেতর বিশেষ কায়দায় লুকিয়ে রাখা আরও ১ হাজার ৩০০টি ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

জানতে চাইলে অভিযানের বিষয়টি নিশ্চিত করেন জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ আবদুল হামিদ। তিনি বলেন, আটক ব্যক্তি কক্সবাজার থেকে পেটের ভেতর লুকিয়ে ১ হাজার ৩০০টি ইয়াবা নিয়ে চট্টগ্রাম আসেন। এরপর চট্টগ্রাম থেকে আরও ১ হাজার ৫০০টি ইয়াবা নিয়ে বাসে চড়ে নোয়াখালীর উদ্দেশে রওনা হন। পথে চৌমুহনীতে তাঁদের হাতে তিনি আটক হন।

আবদুল হামিদ আরও জানান, আটক দেলোয়ারের বিরুদ্ধে রাতেই মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে থানায় মামলা করা হয়েছে। আজ তাঁকে কারাগারে পাঠানো হবে।