প্রত্যক্ষদর্শী ও হতাহত ব্যক্তিদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, আজ সকাল ৯টার দিকে ইসমানীর চর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের অদূরে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকেরা বাগ্‌বিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন। বাদানুবাদের একপর্যায়ে আওয়ামী লীগ –সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী মনিরুল হকের সমর্থকেরা শটগানের গুলি ছোড়েন। এতে মোটরসাইকেল প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করা স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মাহবুব মিয়ার তিন সমর্থক গুলিবিদ্ধ হন। হতাহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করে গজারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক কান্তা রানী দাস বলেন, আহতাবস্থায় সকালে তিনজনকে হাসপাতালে আনা হয়। প্রাথমিকভাবে মনে হয়েছে, তাঁদের শরীরে শটগানের গুলি লেগেছে। প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাঁদের তিনজনকেই ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মাহবুব মিয়া বলেন, ‘নৌকার প্রার্থী ভয়ে আছেন। ভোটাররা যেন কেন্দ্রে যেতে না পারেন, সে জন্য সকাল থেকে বিভিন্ন কেন্দ্রে নৌকার সমর্থকেরা ঝামেলা তৈরি করছেন। ইসমানীর চর এলাকায় আমার সমর্থকদের গুলি করা হয়েছে।’ এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানান তিনি।

অভিযোগের বিষয়ে কথা বলতে নৌকার প্রার্থী মনিরুল ইসলামের মুঠোফোন নম্বরে ফোন করা হলে তিনি সাংবাদিক পরিচয় শুনে ফোন কেটে দেন।

গজারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোল্লা সোহেব আলী বলেন, ‘ঘটনাটি কেন্দ্রের বাইরে ঘটেছে। লোকমুখে জানতে পেরেছি। কয়েকজন আহত হয়েছেন। মূলত ভোটারদের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি করতে এ ঘটনা ঘটানো হয়েছে। তবে প্রতিটি কেন্দ্রে শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ হয়েছে।’