মামলার এজাহারের বরাত দিয়ে কুষ্টিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দেলোয়ার হোসেন খান প্রথম আলোকে বলেন, ওই তরুণীর আপত্তিকর ছবি মুঠোফোনে ধারণ করে ফেসবুকে পোস্ট করে মর্যাদাহানির অভিযোগে মামলা হয়েছে। ২০১২ সালের পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনের ৮ (১) /৮ (২) /৮ (৩) ধারায় মামলাটি করা হয়েছে। জেলা সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন ইউনিট মামলার তদন্ত করছে। আসামিদের ধরতে তৎপরতা চলছে।

ভুক্তভোগী ছাত্রলীগ নেত্রী বলেন, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে গত সোমবার শ্লীলতাহানির অভিযোগে তিনি থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দেন। এ খবর জানার পর আসামিরা তাঁর সম্মানহানি করতে ব্যক্তিগত ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে দিয়েছে। আইনের আশ্রয় নেওয়ার পরও যদি কোনো প্রতিকার তিনি না পান, তাহলে আত্মহত্যা করা ছাড়া কোনো পথ থাকবে না তাঁর।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন