এ সময় স্থানীয় সংসদ সদস্য শফিকুল আজম খান, জেলা প্রশাসক মনিরা বেগম, মহেশপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মইজুদ্দিন হামিদ, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা হাসান আলী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাজ্জাদুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মীর সুলতানুজ্জামান, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের সদস্য আনিছুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সারের ওপর সরকার ভর্তুকি দিচ্ছে জানিয়ে কৃষিমন্ত্রী বলেন, এ দেশের ৭০ শতাংশ মানুষ এখনো কৃষির সঙ্গে জড়িত। এখন থেকে কৃষির আয় বাড়াতে হবে। যাতে করে কৃষকেরা বা এর সঙ্গে যাঁরা জড়িত, তাঁদের জীবন মান আরও উন্নত করতে পারেন। সেই লক্ষ্যে সরকার কাজ করছে, সারের ওপর ভর্তুকি দিচ্ছে। কৃষির বিভিন্ন খাতে সরকারের সহযোগিতার কারণে সব ধরনের সবজির উৎপাদন তুলনামূলক বেড়েছে।

আজ সকাল ১০টার দিকে মথুরা এলাকা পরিদর্শন শেষে মন্ত্রী দত্তনগর কৃষি খামার পরিদর্শন করেন। এরপর তিনি চুয়াডাঙ্গার উদ্দেশে রওনা দেন।