পুলিশ জানায়, গত সোমবার সকালে টেকনাফের নয়াপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠসংলগ্ন বাজারের পাশ থেকে আবদুর রহমানের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। আবদুর রহমান সাবরাং ইউনিয়নের নয়াপাড়া পুরানপাড়ার বাসিন্দা মৃত মোহাম্মদ ইয়াসিনের ছেলে। তিনি মোবাইল ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠান নগদের এজেন্টদের ‘সুপারভাইজার’ ছিলেন। এ ঘটনায় গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে আবদুর রহমানের ছোট ভাই আবদুস শুক্কুর (২৮) বাদী হয়ে হাবিবুল্লাহকে (৩৭) প্রধান আসামিসহ আটজনের নাম উল্লেখ করে এবং চার থেকে পাঁচজনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করে হত্যা মামলা করেন।

জ্যেষ্ঠ সহকারী পুলিশ সুপার আবু সালাম চৌধুরী বলেন, মামলার পর র‌্যাব গোয়েন্দা নজরদারি ও তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় অভিযান চালায়। আজ ভোররাতে মামলার এজাহারভুক্ত আসামি শওকত আলমকে গ্রেপ্তার করা হয়। আসামিকে টেকনাফ থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. হাফিজুর রহমান বলেন, গ্রেপ্তার আসামিকে আদালতে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে। তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে পাঁচ দিনের রিমান্ডের আবেদন করা হবে।