পরে স্থানীয় লোকজন সড়কের ওপর লাশ পড়ে থাকতে দেখে শাজাহানপুর থানায় খবর দেন। আছলাম ফকিরের ভাতিজা রুবেল হোসেন বলেন, সড়ক দুর্ঘটনায় তাঁর চাচার মৃত্যু হয়েছে বলে তাঁরা ধারণা করছেন। তাই এ বিষয়ে তাঁদের কোনো অভিযোগ নেই।

শাজাহানপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) শাহীন আলী বলেন, স্থানীয় লোকজনের মাধ্যমে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে। তবে নিহত ব্যক্তির পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ না থাকায় ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তবে কোন যানের চাপায় ওই ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে, সেটা শনাক্ত করা যায়নি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন